ঢাকা, সোমবার, ১০ই আগস্ট, ২০২০ ইং

শিরোনাম
প্রকাশ : জুন ২৯, ২০১৯

অভিনব কৌশলে যাত্রীদের টাকা হাতিয়ে নিতো তারা

অনলাইন ডেস্ক

যশোরের বেনাপোল চেকপোস্টে এক পাসপোর্ট যাত্রীর কাছ থেকে প্রতারণা করে ২১ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়ার অপরাধে রবিউল (২৫) ও রকি (২৮) নামে দুজনকে আটক করা হয়েছে। এ সময় তাদের কাজ থেকে ২১ হাজার টাকা উদ্ধার করে পাসপোর্ট যাত্রীকে ফেরত দেয় বিজিবি।

শনিবার (২৯ জুন) দুপুরে বেনাপোল চেকপোস্টে এ ঘটনা ঘটে। আটক রবিউল বেনাপোল পোর্ট থানার বড়আঁচড়া গ্রামের আব্দুস সাত্তারের ছেলে ও রকি একই গ্রামের আব্দুর রহিমের ছেলে।

চেকপোস্ট বিজিবি জানায়, বেনাপোল চেকপোস্টের রিয়াদ এন্টারপ্রাইজের এই দুই প্রতারক ইমিগ্রেশনের কাজ করে দিতে রংপুর থেকে ভারতে যাওয়ার জন্য আসা কনক চন্দ্র সেনের পাসপোর্ট নিয়ে নেয়। এ সময় ভারতের পেট্রাপোলের একটি কাউন্টার থেকে টাকা ভাঙালে বেশি পাওয়া যাবে বলে কনক সেনের ২১ হাজার টাকা নিয়ে একটা ভিজিটিং কার্ড ধরিয়ে দেয়। কিন্তু পেট্রাপোয়ে গিয়ে কোনো কাউন্টার খুঁজে পান না কনক। পরে ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশকে বিষয়টি অবহিত করেন।

ভারতের ইমিগ্রেশন পুলিশ বাংলাদেশের বিজিবি ক্যাম্পে জানালে বিজিবি নায়েক আতিয়ার রহমান রিয়াদ এন্টারাপ্রাইজে অভিযান চালিয়ে রকিকে আটক করেন। এরপর তার স্বীকারোক্তি অনুয়ায়ী রিয়াদ এন্টারপ্রাইজের মালিক রবিউলকেও আটক করেন। এ সময় তাদের কাছ থেকে ২১ হাজার টাকাও উদ্ধার করা হয়।

দুই মাস আগে কনক চন্দ্র সেনের কাছ থেকে টাকা ভারতে পাঠিয়ে দেয়ার কথা বলে গুনতে গুনতে পাঁচ হাজার টাকা টেবিলের নিচে ফেলে দেয় রবিউল। সে টাকাও তাদের নিকট থেকে উদ্ধার করে বিজিবি।

চেকপোস্টের লোকজন জানায়, আটক রবিউল ও রকি শুধু ছিনতাই করে না, একটা বিরাট চক্র অভিনব উপায়ে টাকা হাতিয়ে নেয়। এখানে একটি বড় আছে যারা সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ভারত-বাংলাদেশ যাতায়াতকারী যাত্রীদের টার্গেট করে কখনো বাস টার্মিনালের মধ্যে, যাত্রী টার্মিনালের সামনে, লোকাল বাস স্ট্যান্ড থেকে জোর করে ইজিবাইকে তুলে ছিনতাই করে পালিয়ে যায়। চেকপোস্টে বিভিন্ন নামে স্টোর ও এন্টারপ্রাইজ আছে শুধুমাত্র পাসপোর্ট যাত্রীদের দালালির কাজে। যাত্রীরা বাস থেকে নামার সাথে সাথে তারা জোর করে ধরে বর্ডারের কাজ করে দেয়ার কথা বলে।

ওই সমস্ত স্টোর ও এন্টারপ্রাইজে নেয়ার পর বলে, কার কাছে কতো টাকা আছে দেন। ভারত যেতে হলে এন্ট্রি করতে হবে। এরপর টাকা নিয়ে অভিনব কায়দায় টাকা গুনতে গুনতে বসে থাকা চেয়ারের কাছে ফেলে দেয়। যদি কারও ২০ হাজার টাকা থাকে সেখান থেকে ৫-৬ হাজার টাকা ফেলে দিয়ে তাকে বলে, আপনার টাকা গোনেন কম বা ভুল আছে। এরা সংখ্যায় বেশি হওয়ায় পাসপোর্ট যাত্রীরা তাদের সঙ্গে পেরে ওঠে না।

এ বিষয়ে চেকপোস্ট বিজিবি ক্যাম্পের কমান্ডার সুবেদার বাকী বিল্লাল জানান, পাসপোর্ট যাত্রীর ছিনতাই হওয়া টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে বেনাপোল পোর্ট থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর