এসআই মহিউদ্দিন ও দুই পুলিশ সদস্যর বিরুদ্ধে আদালতে হত্যা মামলা

বরিশাল নগরীর শিক্ষানবীশ আইনজীবী রেজাউল করিমকে (৩০) গোয়েন্দা পুলিশের নির্যাতনে মৃত্যুর অভিযোগ এনে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। মঙ্গলবার নিহতের বাবা ইউনুচ মুন্সি এই মামলা দায়ের করলে বেলা আড়াইটায় মেট্রোপলিটন মেজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মামলাটি আমলে নেন।
মামলায় নগর গোয়েন্দা পুলিশের এস আই মহিউদ্দিন মাহিকে প্রধান এবং তার সঙ্গীয় দুই কনস্টবলকে আসামী করা হয়েছে। অপরদিকে পুলিশের গঠন করা তদন্ত টিম সদস্যরা রেজাউল করিমের বাসায় গিয়েছেন তদন্ত করার জন্য।
গত দুই জানুয়ারী শনিবার দিবাগত মধ্যরাতে রেজাউল ইসলামের অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে শের-ই-বাংলা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। এই মৃত্যু পুলিশের নির্যাতনে বলে স্বজন ও এলাকাবাসী দাবী করেন। পুলিশের পক্ষ থেকে অপমৃত্যু মামলা করা হলেও রেজাউলের বাবা ছেলে হত্যার বিচার পাওয়ার জন্য আদালতে মামলা করেছেন।
মামলার আইনজীবী এ্যাডভোকেট আবুল কালাম আজাদ বলেন, এটি একটি চাঞ্চল্যকর মামলা। পুলিশের নির্যাতন ও হেফাজতে রেজাউলের মৃত্যু হয়েছে। তারা দন্ডবিধির ৩০২/ ৩৪ ধারায় মামলা করেছেন। আদালতের কাছে ন্যায় বিচার পাবেন বলে প্রত্যাশা করেন তিনি।
এদিকে তদন্ত কমিটির প্রধান উপ পুলিশ কমিশনার মো. মোক্তার হোসেন বলেন, আমরা ঘটনার তদন্ত করছি। তদন্ত শেষে প্রতিবেদন প্রকাশ করা হবে।
সন্তান হারিয়ে রেজাউল করিমের মা-বাবা ইউনুচ মুন্সি ও জেসমিন বেগম ছেলে হত্যার সঠিক বিচার দাবী করেছেন।
গত ২৯ ডিসেম্বর নগরীর সাগরদী এলাকা নিজ বাসার সামনে থেকে গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল রেজাউলকে আটক করে নিয়ে যায়। এরপর চার দিন পর তার মৃত্যু হয়।

error: Content is protected !!