ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম
প্রকাশ : আগস্ট ১২, ২০২১

খুলে দেয়া হচ্ছে পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটা

অনলাইন ডেস্ক

ইলিয়াস শেখ কুয়াকাটা প্রতিনিধি:- ১৯ আগস্ট থেকে পর্যটন ও বিনোদন কেন্দ্র খোলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এমন সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর থেকেই কুয়াকাটায় পর্যটন ব্যবসায়ীরা, স্থানীয়দের মুখে আনন্দের হাসি দেখা গিয়েছে, সরকার যে নির্দেশ দিয়েছে তারমধ্যে উল্লেখযোগ্য,পর্যটনকেন্দ্র-রিসোর্ট, কমিউনিটি সেন্টার ও বিনোদন কেন্দ্র আসন সংখ্যা শতকরা ৫০ ভাগ ব্যবহার করে চালু করতে পারবে। সবি মানতে ইচ্ছুক কুয়াকাটার পর্যটন ব্যবসায়ীরা।
বৃহস্পতিবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। এমন সুখবর দেখে ইতিমধ্যেই হোটেল-মোটেল সাজানো নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে হোটেল কর্মচারীরা, এদিকে দেখা গিয়েছে হোটেল মালিক ও ম্যানেজার কর্মচারীদের ফোন দিয়ে সুখবর বার্তা পৌঁছে দিচ্ছে, এবং কর্মস্থান ফিরে আসতে বলা হয়েছে ।
এ নোটিশের বলা হয়, সড়ক নৌ ও রেলপথে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শতভাগ গণপরিবহণ চলাচল করতে পারবে।  পর্যটন, বিনোদন ও কমিউনিটি সেন্টারে আসন সংখ্যার ৫০ ভাগ ব্যবহার করে চালু করা যাবে।
আজ ১২ আগস্ট পর্যটন কেন্দ্র, রিসোর্ট, কমিউনিটি সেন্টার ও বিনোদন কেন্দ্র খোলার অনুমতি দিল সরকার।
এমন খুশির সংবাদ পেয়ে, হোটেল সমুদ্র বিলাসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, মোঃ ইসমাইল ইমন শেখ বলেন, অনেকদিন পর আমাদের পর্যটন কেন্দ্রের সাথে জড়িত সকল ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন সরকার, আমরা সকলে আনন্দিত ইতিমধ্যে হোটেল কর্মচারী দের বলা হয়েছে, তারা অল্প কিছুদিনের মধ্যে চলে আসবে।
এদিকে হোটেল আল বেলালের মালিক, মাসুম আল বেলাল জানান, খবর শোনার সাথে সাথে পর্যটকদের বরণ করার জন্য আমরা প্রস্তুত রয়েছি, আমরা পর্যটকদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে সেবা দেওয়ার পরিকল্পনা করছি, আমন্ত্রণ কিত পর্যটকদের সেবা দেওয়ার জন্য আমরা প্রস্তুত রয়েছি।
 সামাজিক সংগঠন কুয়াকাটা শুভ সংঘ ক্লাবের সভাপতি, জাহিদুল ইসলাম জাহিদ জানান, আমরা সব সময় পর্যটকদের আনন্দ দেওয়ার জন্য নানা ধরনের অনুষ্ঠান করে থাকি, এবারও প্রথম দিন পর্যটকদের জন্য একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করার পরিকল্পনা নিয়েছি।
একই সময় ট্যুর অফ অ্যাসোসিয়েশন (টোয়ক) এর সভাপতি মোঃ রুমান ইশতিহার তুষার, সাংবাদিকদের জানান, আমি ইতিমধ্যে পর্যটন ব্যবসায়ীদের আনন্দ উল্লাস দেখেছি, আমাদের পক্ষ থেকে কুয়াকাটায় যত পর্যটন গাইড রয়েছে সবাইকে পরামর্শ দেয়া হবে, যাতে করে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সরকারি নির্দেশ মেনে পর্যটকদের সেবা দিতে পারে, এবং পর্যটকদের সহযোগিতার জন্য আমরা প্রস্তুত রয়েছি।
সাথে সাথে সবার খুশির বার্তা রয়েছে পর্যটকদের জন্য, সবাই বলেছে সকল পর্যটকের আনন্দ ভ্রমণটা হোক সমুদ্র কন্যা কুয়াকাটায়, আপনাদের জন্য অপেক্ষা করছে অপরূপ সৌন্দর্য।

আপনার মন্তব্য