ঢাকা, শনিবার, ২৪শে অক্টোবর, ২০২০ ইং

শিরোনাম
প্রকাশ : অক্টোবর ৭, ২০২০

চরফ্যাশনে পরকিয়া প্রেমিক আটক করে ছেড়ে দেয়ার ঘটনায় তোলপার!

অনলাইন ডেস্ক

চরফ্যাসন( ভোলা) প্রতিনিধিঃ
চরফ্যাশনে বাক প্রতিবন্ধীর স্ত্রীর সঙ্গে ঢালীর হাট বাজার ব্যাবসায়ীর পরকীয়া অতঃপর জনতার হাতে আটকের ঘটনায় তোলপাড় চলছে। পরকীয়া প্রেমিক কে হাতে নাতে আটকের পর স্হানীয় এক প্রফেসর ও এক হেড মাষ্টারের হস্তক্ষেপে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে ছেড়ে দেওয়ার ঘটনায় এলাকায় ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। এঘটনায় স্হানীয় বাসিন্দারা সংবাদ কর্মীদের কাছে অভিযোগ করেন। গত ৫ আগষ্ট গভীর রাতে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানিয সূত্রে জানা যায়, গত সোমবার রাতে ৩ সন্তানের জননির সঙ্গে অনৈতিক কাজ করতে গিয়ে ধরা পরল এক যুবক। অবশেষে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে গভীর রাতে ছেড়ে দেওয়ায় এলাকায় ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনায় স্হানীয় বাসিন্দারা সংবাদ কর্মীদের কাছে অভিযোগ করেন।
স্হানীয় সুএে জানাযায়, গত ৫ অক্টোবর আব্দুল্লাহ পুর জেলে বাক প্রতিবন্ধীর স্থী ৩ সন্তানের জননীর সঙ্গে একই এলাকার হেড মাষ্টারের চাচাতো ভাই মফিজ ও স্হানীয় ঢালির হাট বাজার ব্যবসায়ির দির্ঘদিন যাবৎ পরকিয়া সম্পর্ক চলে আসছে। ঘটনার দিন জেলে প্রতিবন্ধি বাড়িতে না থাকার সুযোগে গৃহবধূর ঘরে প্রবেশ করে ওই প্রেমিক ।গৃহবধুর ঐ বাড়িতে বসবাস করা এক কৃষক রাতের অন্ধকারে গোয়াল ঘরে গরু দেখতে আসলে ঐ লম্পটকে ঘর থেকে বের হতে দেখে চোর চোর বলে চিৎকার দেয়। স্হানীয় লোক জন লম্পট কে আটক করে উওম মধ্যম দিয়ে স্হানীয় বাকের মাস্টারের বাড়িতে আটকে রাখে। গভীর রাতে স্হানীয় এক হেড মাষ্টার ও এক প্রফেসর বিষয়টি ধামাচাপা দিতে এলাকার সমাজ পতিদের কাছে দৌড় ঝাপ করে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে ঐ লম্পট কে ছেড়ে নিয়ে যায় বলে স্হনীয় একটি সুএে জানায়। সংবাদকর্মীরা তথ্য আনতে গেলে ওই হেডমাষ্টার নিউজটি না করার অনুরোধ করেন।স্থানীয় এক সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান জানান, ঐ লম্পট ইতো পুর্বে এমন ঘটনা আরও ঘটিয়েছে। চরফ্যাশন থানা অফিসার ইনচার্জ জানান, এমন কোনো অভিযোগ পাইনি, অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেব


আপনার মন্তব্য

error: Content is protected !!