ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৬ই আগস্ট, ২০২০ ইং

শিরোনাম
প্রকাশ : জুলাই ৬, ২০২০

টাঙ্গাইল ও ধনবাড়ীতে নৌকা তৈরী ও কেনাবেচার ধুম পড়েছে

অনলাইন ডেস্ক

টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধি::

নদীতে এসছে নতুন পানি নৌকা তৈরী ও কেনাবেচার ধুম পড়েছে টাঙ্গাইলে । টাঙ্গাইল সদর উপজেলা সহ জেলার ভূঞাপুর, গোপালপুর,ধনবাড়ী, দেলদুয়ার, বাসাইল, কালিহাতী, নাগরপুরসহ বেশ কয়েকটি উপজেলায় বর্ষার সময় নদীতে পানি বাড়ার সাথে সাথেই শুরু হয় গ্রামীন ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ।

প্রতি বছরের মত এবারো বর্ষার পানি বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে নৌকা তৈরী ও বেচাকেনার ধুম পড়েছে। এ ছাড়া অনেকে পুরাতন নৌকা মেরামত করে নিচ্ছেন।
ব্যস্ত সময় পার করছেন নৌকা তৈরীর কারিগররা। বর্ষার কারণে চাহিদা বেড়ে গেছে নৌকার। বর্ষার শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত হুগড়া, কাকুয়া, কাতুলী ও মাহমুদনগর নদীবেষ্টিত এলাকার জেলেরা নৌকা দিয়ে রাতদিন মাছ শিকার করেন। চরাঞ্চলের নিচু এলাকার বাসিন্দারা নৌকার মাধ্যমে খেয়া পার হয়ে এক গ্রাম থেকে অন্য গ্রাম ও স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা, হাটবাজারে যাতায়াত করেন। নদীতীরবর্তী গ্রামগুলোতে নৌকার ব্যবহার হচ্ছে যুগ যুগ ধরে। বন্যার সময় নৌকাই একমাত্র ভরসা। বন্যার পরপরই শুরু হবে নৌকাবাইচ।

সরেজমিনে সদর উপজেলায় কাতুলী ইউনিয়নের তোরাপগঞ্জ ও কাকুয়া ওমরপুর এলাকার নৌকা তৈরীর কারখানায় দেখা যায়, নৌকা তৈরীরতে ব্যস্ত সময় পার করছেন কারিগররা। কেউ করাত দিয়ে কাঠ কাটায় ব্যস্ত। কেউ হাতুড়ী দিয়ে নৌকায় পেরেক বা গজাল লাগাতে ও আবার কেউবা তৈরী নৌকা বিক্রি নিয়ে ব্যস্ত। সব মিলিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন নৌকা তৈরীর কারিগররা।

নৌকা তৈরীর কারিগর আ. সামাদ বলেন, সারাবছর নৌকা তৈরী করলেও বর্ষাকালে ব্যস্ততা কয়েকগুণ বেড়ে যায়। এবার আগাম বন্যা হওয়ায় নৌকার চাহিদা বেড়ে গেছে। প্রতিটি নৌকা বিক্রি হচ্ছে তিন হাজার থেকে আট হাজার টাকায়। দূর-দূরান্ত থেকে আগত ক্রেতারা প্রতিদিন তাদের পছন্দসই নৌকা এখান থেকে কিনে নিচ্ছেন।

ধনবাড়ী উপজেলার বীরতারা ইউনিয়নের ঝিনাইনদীতে এবছর সম্প্রতি ৯৫ হাত দীর্ঘ লম্বা নৌকা নামানো হয়েছে নদীতে। ধনবাড়ীর বীরতারা ইউনিয়নের রাজার হাট ও পাচখালী, বালাসুতী গ্রামে চলছে নৌকা তৈরী ও বেচা কেনা।
স্থানীয় ইউপি সদস্য ও নৌকা তৈরী ও বিক্রয়কারক মনোহর আলী মেম্বার তিনি জানান, আমরা প্রতি বছরই নৌকা তৈরী করে বিক্রি করি ও নৌকা বাইচে প্রতিযোগীতা দেই এবছরও দেব। ৯৫ হাত লম্বা একটি নৌকা তৈরী করে ঝিনাই নদীতে নামিয়েছি।

এব্যাপারে বীরতারা ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম শফি তিনি জানান, নৌকা বাইচ একটি প্রাচীন ঐতিহ্যবাহী খেলা। এই খেলাটি নতুন প্রজম্মসহ সকল কে এর আনন্দ দেওয়ার জন্য প্রতি বছরই আমাদের ধনবাড়ীর বীরতারার ঝিনাই নদীর রাজারহাট পয়েন্ট ও বীরতারা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনের পয়েন্ট থেকে এ নৌকা বাইচের আয়োজন করা হয়। আমাদের ধনবাড়ী মধুপুর আসনের সংসদ সদস্য মাননীয় কৃষি মন্ত্রী ড. মো: আব্দুর রাজ্জাক এমপি মহোদয় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে নৌকা বাইচ উদ্বোধন করে উপভোগ করেন। আমারা ও আমার বীরতারা ইউনিয়নবাসী এ নৌকা বাইচ টি ধরে রাখতে ৯৫ হাত লম্বা নৌকা তৈরী করে ঝিনাই নদীতে নামিয়েছে।

টাঙ্গাইল সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আতিকুল ইসলাম জানান, নৌকা নির্মাণ ও ব্যবহার সুদীর্ঘকালের ঐতিহ্য। ঐতিহ্যবাহী এ বাহনকে ধরে রাখতে এবং নির্মাণ শ্রমিকদের টিকিয়ে রাখতে সংশ্লিষ্ট সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।

 


আপনার মন্তব্য