ঢাকা, বুধবার, ২৮শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম
প্রকাশ : জুলাই ১৭, ২০২১

পরিত্যক্ত জমিতে হাসপাতাল চায় ইয়ুথনেট

অনলাইন ডেস্ক

চট্টগ্রামের সিআরবি হচ্ছে প্রাকৃতিক সৌন্দর্যমণ্ডিত একটি ঐতিহাসিক স্থান। এখানকার স্থাপনা ধ্বংস, পরিবেশের ভারসাম্য নষ্ট ও গাছ নিধন কোনোভাবে কাম্য নয়। তাই সিআরবিতে নয়, পরিত্যক্ত জমিতে হাসপাতাল নির্মান করার দাবি জানিয়েছে পরিবেশবাদী সংগঠন ইয়ুথনেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিস। অবিলম্বে এই প্রকল্প বাতিল করে শতবর্ষী গাছ ও জীববৈচিত্র্য রক্ষার জন্য এলাকাটিকে বিশেষ জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ এলাকা এবং শতবর্ষী গাছগুলোকে স্মারক বৃক্ষ হিসেবে ঘোষণারও দাবি সংগঠনটির।

শুক্রবার (১৬ জুলাই) বৃষ্টি ভেজা বিকালে চট্টগ্রামের ফুসফুস খ্যাত সিআরবিতে হাসপাতাল নির্মানের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে সিআরবি এলাকায় ইয়ুথনেট ফর ক্লাইমেট জাস্টিসের সহযোগিতায় ইয়ুথনেট চট্টগ্রাম শাখা ও এ্যাক্টিভিস্টার উদ্যোগে প্রতিবাদী মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। এসময় সিআরবি চত্বরের শিরিষতলায় বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ কর্মসূচিতে অংশ নেয়। এসময় সমবেত তরুণ জলবায়ু কর্মীরা প্রস্তাবিত হাসপাতাল এলাকায় বৃক্ষরোপণ করেন। একই দাবিতে মানববন্ধনসহ নানা কর্মসূচি পালন করে বিভিন্ন সামাজিক ও অরাজনৈতিক সংগঠন

ইয়ুথনেট চট্টগ্রাম শাখার সমন্বয়কারী মো: নাহিদের সভাপতিত্বে ও মাস্টার ফ্যাসিলিটর সুস্মিতা সুলতানা স্বর্নালী’র পরিচালনায় এ মানববন্ধন কর্মসূচীতে সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন মো.কাউসার,উজ্জ্বল, আব্দুল্লাহ জিসান,রোমিজা সুলতানা, তানভীর মাহমুদ প্রমুখ।

এসময় বক্তারা বলেন, চট্টগ্রামের সিআরবি এলাকা পুরোটাই গড়ে উঠেছে পাহাড় এবং টিলার ওপর। পুরো এলাকা জুড়ে রয়েছে শতবর্ষী গর্জন, শিরীষসহ অন্যান্য গাছ। বিশাল বিশাল গাছগুলো কত শত পাখির আবাস। এমন প্রাকৃতিক পরিবেশ দেশের অন্য শহরগুলো থেকেও হারিয়ে গেছে। এলাকাটি নগরবাসীর জন্য শুধু স্বস্তিদায়কই নয়, বরং এটি জীববৈচিত্র্যের অনন্য আধার।

অতিথির বক্তব্যে সাংবাদিক ও পরিবেশ কর্মী মুজিব উল্ল্যাহ্ তুষার বলেন, পৃথিবীকে মানুষের বসবাসের উপযোগী করতে বৃক্ষের ভূমিকা অনেক। বনাঞ্চল না থাকলে পৃথিবী হয়ে ওঠত মরুভূমি এবং মানুষের অস্তিত্ব হতো বিপন্ন। পরিবেশ বিপর্যয়ের জন্য আজ প্রতিদিন বজ্রপাতে মানুষ মারা যাচ্ছে। বড় বড় গাছ বজ্রপাত প্রতিরোধে কার্যকর ভূমিকা রাখে। ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য বাসযোগ্য পৃথিবী গড়তে বৃক্ষ নিধন নয়, বৃক্ষ রোপনই আমাদের লক্ষ্য হওয়া উচিত। তাই আসুন গাছ লাগাই, গাছের পরিচর্যা করি এবং পরিবেশ রক্ষায় সচেষ্ট হই।

ইয়ুথনেট চট্টগ্রাম শাখার সমন্বয়কারী মো: নাহিদ জানান, ঐতিহ্যবাহী স্থাপনা ধ্বংস ও পরিবেশের ভারসাম্য নষ্ট করে কোনো প্রকল্প বাস্তবায়ন করলে তা আমরা মানতে পারিনা। এই ঐতিহ্যবাহী স্থাপনা ধ্বংস ও পরিবেশের ভারসাম্য নষ্ট করে কোনো প্রকল্প বাস্তবায়ন করলে তা সংবিধানের ১৮-ক ও ২৪ অনুচ্ছেদের লঙ্ঘন বলে বিবেচিত হবে। চট্টগ্রাম নগরীতে হাসপাতাল করার মতো রেলওয়ের অনেক জমি পরিত্যক্ত অবস্থায় পড়ে আছে। যা প্রভাবশালীরা দখল করে আছেন। সেগুলো উদ্ধার করে হাসপাতাল নির্মান করা সম্ভব। যতদিন সিআরবিতে হাসপাতাল নির্মাণের এ সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার না হবে ততদিন চট্টগ্রামের তরুণরা এ আন্দোলন পরিচালনা করবে। ঐক্যবদ্ধভাবে চট্টগ্রামের স্বার্থে আমরা এ আন্দোলন এগিয়ে নিয়ে যাব।


আপনার মন্তব্য