ঢাকা, রবিবার, ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম
প্রকাশ : ফেব্রুয়ারি ৩, ২০২১

বরিশালের সড়কে যত্রতত্র পার্কিং ও ফুটপাত দখলে ভোগান্তিতে নগরবাসী

অনলাইন ডেস্ক

বরিশালের সড়কে যত্রতত্র পার্কিং ও ফুটপাত দখল করে ভ্রাম্যমাণ দোকান দেওয়ায় ভোগান্তিতে পড়েছেন নগরবাসী। নগরীতে অধিকাংশ বাণিজ্যিক ভবনে পার্কিং ব্যবস্থা না থাকায় সড়কে পার্ক করা হয় যানবাহন। ফলে সৃষ্টি হয় যানজটের।

অপরদিকে ভ্রাম্যমাণ দোকানিদের উৎপাতে দখল হয়ে গেছে ফুটপাতগুলো। তবে এ বিষয়ে তেমন কোনো ভূমিকা নেই বরিশাল সিটি করপোরেশন ও বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের।

বুধবার নগরীর বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সড়ক ঘুরে দেখা যায়, ব্যস্ততম সড়ক জিলা স্কুল মোড় থেকে জেলখানার মোড়, গীর্জামহল্লা, হেমায়েত উদ্দিন রোড, চকবাজার, বাজার রোড, পোর্টরোড, শেরেবাংলা হাসপাতাল এলাকা, দুই বাসটার্মিনাল ও লঞ্চঘাটসহ অধিকাংশ গুরুত্বপূর্ণ সড়ক অবৈধ পার্কিং ও দখলদার অতিক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের দখলে।

ফলে নগরীতে দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে যানজট। ঘটছে দুর্ঘটনা, বাড়ছে ভোগান্তি। মাঝে-মধ্যে ট্রাফিক বিভাগ ও সিটি কর্পোরেশন থেকে নগরীতে অভিযান চালানো হলেও অভিযানকারী দল চলে যাওয়ার পরপরই ফের দখল হয়ে যায়।

মাসখানেক আগে ট্রাফিক বিভাগের এক কর্মকর্তা প্রতিদিন তিনবার অভিযান চালানোর ঘোষণা দিলেও তার সুফল নগরবাসী এখনও পাননি। ফলে দিন দিন নগরবাসীর ভোগান্তি বেড়েই চলছে।

বেসরকারি কোম্পানির কর্মকর্তা মো. রিপন জানান, অফিসের কাজে প্রত্যেক দিন নগরীর গির্জা মহল্লা যাই। ফুটপাত দখল হয়ে যাওয়ায় অফিসে যাওয়া-আসায় চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয়।

ফুটপাতে ব্যবসা পরিচালনাকারী এক ব্যবসায়ী বলেন, আমরা গরিব মানুষ। নিয়মিত মাসোয়ারা দিয়ে ফুটপাতে ব্যবসা করে খাই। প্রশাসন চাইলে তুলে দিতেই পারে। কিন্তু তাতে আমাদের কষ্ট আরও বাড়বে।

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের উপকমিশনার (ট্রাফিক) মো. জাকির হোসেন মজুমদার বলেন, নগরীর সড়ক পার্কিং মুক্ত রাখতে আমরা প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছি। আজও বিকাল ৩টা থেকে অভিযান চালানো হবে। পাশাপাশি মাঝে মধ্যে বিশেষ অভিযান চালানো হয়। এছাড়া নগরীর সদর রোডে বেশ কিছু ক্লিনিক ও হাসপাতাল রয়েছে। এসব এলাকায় মানুষ অল্প সময়ের জন্য গাড়ি পার্কিং করে, সেটা মানবিকভাবে দেখা হয়। কিন্তু কিছু কিছু ব্যবসায়ী ও কর্মচারী দিনব্যাপী পার্কিং করে রাখে তাদের বিরুদ্ধে আমরা আইনগত ব্যবস্থা নেই।

এ ব্যাপারে বরিশাল সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র গাজী নঈমুল ইসলাম লিটু বলেন, নগরীর সদর রোডটি শত বছরের পুরাতন। যার কারণে এখানে গাড়ি পার্কিংয়ের কিছু নেই। সবাই সড়কের উপর গাড়ি পার্কিং করছে। তবে আমাদের ভবন তৈরির প্লানে পার্কিং শর্ত হিসেবে দেয়া আছে। পাশাপাশি হকারদের কারণে নগরীতে যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে।


আপনার মন্তব্য

error: Content is protected !!