বরিশালে পুলিশ কমিশনারের কাছে অভিযোগ, বাদীর পরিবারকে কুপিয়ে জখম

প্রকাশিত: ৭:৪১ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৪, ২০২১

বরিশালে পুলিশ কমিশনারের কাছে অভিযোগ, বাদীর পরিবারকে কুপিয়ে জখম

তালাশ ডেস্ক ॥ বরিশাল মেট্টোপলিটন পুলিশের কাছে অভিযোগ দেয়ায় বাদীর পরিবারসহ ৬ জনকে কুপিয়ে জখম করেছে মাদক ব্যবসায়ীরা।

সূত্রে জানা গেছে বরিশাল নগরীর ভাটারখাল কলোনীতে হালিম শাহ গ্রুপের অতর্কিত সশস্র হামলায় নারীসহ ৬ জন গুরুতর আহত হয়েছে। (বৃহস্পতিবার) রাত ৮টার দিকে বরিশাল নগরীর বান্দরোডস্থ ১০নং ওয়ার্ড ভাটারখাল কলোনীতে এ সশস্র হামলার ঘটনা ঘটে। আহতরা বর্তমানে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, দীর্ঘদিন ধরেই বরিশাল নগরীর ১০নং ওয়ার্ডস্থ ভাটারখাল এলাকার বাসিন্দা হালিম শাহ ওরফে গাজা হালিম মাদক ব্যবসা চালিয়ে আসছে।

এদের বিরুদ্ধে চলতি মাসের ৭ তারিখে বরিশাল মেট্টোপলিটন পুলিশ কমিশনারের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন স্থানীয়রা। অভিযোগ সংবাদ পেয়ে হালিম শাহ’র পরিবার দেশিয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায় আলমগীর সরদারের পরিবারের উপর।

হামলায় গুরুতর আহত সুমনের পরিবার জানান, দীর্ঘদিন ধরেই স্থানীয় হালিম শাহ’র পরিবার মাদক ব্যবসায় করে আসছে তাদের মাদক বিক্রিতে বাধা দেয়ায় তারা প্রায়ই আমাদের উপর হামলা চালায়।

এঘটনায় বরিশাল কোতয়ালী মডেল থানায় একাধিক অভিযোগ ও সাধারণ ডাইরি রয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় হালিম শাহ গ্রুপ অতর্কিত হামলা চালায়।

খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিবেশ নিয়ন্ত্রণ করে সুমন হাওলাদারকে গুরুত্বর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ শেবাচিম হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

খবর পেয়ে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের উচ্চপদস্থ এক কর্মকর্তাসহ কোতয়ালি থানা পুলিশের ওসি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। তবে এই ঘটনায় পুলিশ কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি।

কোতয়ালি মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুরুল ইসলাম বলেন , সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ পাঠিয়ে পরিবেশ নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে। বর্তমানে ভাটারখালের পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। এই ঘটনায় জড়িত কাউকে গ্রেপ্তার করা যায়নি। গুরুতর আহত সুমনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করেছে বলে চিকিৎসকরা জানায়।