ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ই আগস্ট, ২০২০ ইং

শিরোনাম
প্রকাশ : জুলাই ২১, ২০২০

বানারীপাড়ায় র্সবমহলে প্রশংসতি ইঞ্জনিয়িার মহসনি

অনলাইন ডেস্ক

বরশিালরে বানারীপাড়া উপজলো প্রকল্প বাস্তবায়ন র্কমর্কতা প্রকৌশলী মো. মহসনি-উল-হাসান একজন মানবকি র্কমর্কতা হসিবেে তার র্কমস্থলে নজিকেে অল্প দনিইে সুপরচিতি করতে পরেছেনে। পৌর শহর সহ উপজলোর ৮টি ইউনয়িন’র প্রত্যন্তগ্রামঞ্চলে ঘুরে সাধারণ মানুষরে কাছ থকেে এমনটাই জানা গলেো উপজলোর জনগুরুত্বর্পূণ দপ্তররে এ র্কমর্কতার সর্ম্পক।ে সরজেমনিে উঠে আসে প্রধানমন্ত্রী শখে হাসনিার ঘোষনা “গ্রামকে শহররে ন্যায় গড়ে তোলার র্কমসূচি বাস্তবায়নে এই র্কমর্কতা ৮টি ইউনয়িনরে গ্রাম থকেে গ্রামে ঘুরছনে। এ সময় তনিি কভিাবে গ্রামকে শহররে মতো করে সাজানো যায় সে বষিয়ে স্থানীয় জনপ্রতনিধিি ও সুধি সমাজরে সাথে কথা বলছনে। ইতোমধ্যইে তনিি উপজলোর বভিন্নি অতজিনগুরুত্বর্পূণ রাস্তার দু’পাশে স্ট্রটি লাইট স্থাপন করে আলো ছড়য়িছেনে গ্রামীণ জনপদ।ে এদকিে উপজলোর অধকিাংশ দরদ্রি পরবিারে সোলার বদ্যিুৎ স্থাপন করে আলোরবাতঘিরে পরণিত করে প্রশংসতি হয়ছেনে। তার র্কাযালয়ে গয়িে সাধারণ মানুষ স্বাছন্দে কথা বলতে পারায় সর্ম্পূণ উপজলোকে ডজিটিালাইজড করে গড়ে তোলার কাজ এগয়িে চলছে বলে মনে করছনে র্সবস্তররে আমজনতা। এদকিে কোভডি-১৯ প্রাণঘাতি নভলে করোনাভাইরাসকে মোকাবলোর পাশাপাশি স্বচ্ছতার সঙ্গে উন্নয়ন র্কমকান্ড অব্যাহত রখেে উপজলো প্রকল্প বাস্তবায়ন র্কমর্কতা প্রকৌশলী মো. মহসনি-উল-হাসান র্সব মহলে প্রশংসা ও সুনাম কুড়য়িছেনে। দশেে প্রাণঘাতি করোনাভাইরাসরে সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর লকডাউন ও হোম কোয়ারন্টোইনরে কারণে র্কমহীণ হয়ে পড়া দরদ্রি পরবিাররে পাশে দাঁড়য়িে তনিি একজন মানবকি র্কমর্কতা হসিবেে পরচিতিি র্অজণ করনে। তনিি স্থানীয় সংসদ সদস্য মো.শাহে আলম,উপজলো চয়োরম্যান আলহাজ্ব গোলাম ফারুক ও উপজলো নর্বিাহী র্কমর্কতা শখে আব্দুল্লাহ সাদীদরে সঙ্গে সকাল থকেে সন্ধ্যা র্পযন্ত পৌর শহর সহ উপজলোর র্দূগম জনপদরে এক প্রান্ত থকেে অপর প্রান্ত ছুঁটে বড়েয়িে ঘরে ঘরে পৌঁছে দয়িছেনে নত্যি প্রয়োজনীয় খাদ্য ও পণ্য সামগ্রী। প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থকেে বরাদ্দ দওেয়া খাদ্য সামগ্রী যাতে স্বচ্ছতার সঙ্গে সুষ্ঠুভাবে হতদরদ্রি পরবিাররে মাঝে পৌঁছে দওেয়া যায় সজেন্য তনিি নরিলসভাবে কাজ করছেনে।গরীব ও অসহায় মানুষরে সবো করা ও তাদরে পাশে দাঁড়ানোই যনেো তার সবো ও ব্রত।করোনাকালে শুধু মানবসবোয় নজিকেে নয়িোজতি করে রাখনেনি তনি।ি মানবসবোর পাশাপাশি সরকারী সকল উন্নয়নমুলক কাজকে স্বচ্ছতা ও দ্রুততার সাথে বাস্তবায়ন করার জন্য সংশ্লষ্টিদরে সঠকি নর্দিশেনা দওেয়া ও র্সাবক্ষনকি তদারকি করছনে তনি।ি প্রধানমন্ত্রীর নর্দিশেক্রমে কোন প্রকার র্দুনীতি ও অনয়িমরে অভযিোগ ছাড়াই র্দূযােগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রনালয়রে বরাদ্দকৃত ত্রাণ ঘরে ঘরে পৗেঁছে দতিে ভূমকিা রাখনে তনি।ি এ উপজলোর রকিশাচালক,ভ্যানচালক,অটো চালক,অন্ধজন -শাররিকি প্রতবিন্ধী ও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সহ প্রকৃত গরীব ও অসহায় দনিমজুরদরে তালকিা তরৈী করে তাদরে মাঝে পৌছে দয়িছেনে প্রধানমন্ত্রীর ত্রান সামগ্রী। এছাড়া মসজদিরে ইমাম-মুয়াজ্জনি ও শশিুদরে জন্য প্রধানমন্ত্রীর দওেয়া খাদ্য সামগ্রী যথাযথভাবে বতিরণ করা হয়ছে।ে এখন র্পযন্ত এ উপজলোয় ৩শ’ ৯০ মট্রেকি টন চাল ও নগদ ১৪ লক্ষাধকি টাকা ৩৯ হজার গরীব ও অসহায় মানুষরে মাঝে বতিরণ করা হয়ছে।ে পবত্রি ঈদ-উল আজহা উপলক্ষে উপজলোয় আরো ১১ হাজার ২৬৭ পরবিারকে ১০ কজেি করে ভজিএিফ’র চাল বতিরণ র্কাযক্রম চলছ।ে শুধু সরকারী অনুদানই নয় বসেরকারী ভাবে প্রাপ্ত সকল অনুদানও সুষ্ঠভাবে বন্টন করতে তনিি বশিষে ভূমকিা রাখনে। এ প্রসঙ্গে উপজলো প্রকল্প বাস্তবায়ন র্কমর্কতা প্রকৌশলী মো. মহসনি-উল-হাসান বলনে,করোনার প্রভাব শুরুর পর থকেে স্থানীয় সংসদ সদস্য মো. শাহে আলম,উপজলো চয়োরম্যান গোলাম ফারুক ও উপজলো নর্বিাহী র্কমর্কতা শখে আব্দুল্লাহ সাদীদরে নর্দিশেনা মোতাবকে প্রকৃত অসহায় ও দরদ্রি মানুষরে তালকিা তরৈী করে তাদরে ঘরে ঘরে নত্যি প্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী পৌছে দওেয়া হয়। এ উপজলোয় কোন দরদ্রি পরবিার সরকারী ত্রাণ থকেে বঞ্চতি হনন।ি তনিি বলনে এখন র্পযন্ত ৫০ হাজার পরবিারকে সরকারী ত্রান সামগ্রী বতিরন করা হয়ছেে এবং এখনো ত্রান বতিরন র্কাযক্রমন চলমান রয়ছে।ে শুধু ত্রান বতিরণই নয় এর পাশাপাশি উপজলোর সকল উন্নয়ন মুলক কাজ স্বচ্ছতা ও দ্রুততার সাথে বাস্তবায়ন করা হচ্ছ।ে তনিি আরও বলনে মানুষরে সবো করার মহান ব্রত নয়িে চাকরতিে যোগদান করছেি এবং আমৃত্যু সততা ও নষ্ঠিার সঙ্গে দশে এবং জাতরি কল্যাণে নয়িোজতি থাকবো।

 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর