ঢাকা, শনিবার, ২৪শে অক্টোবর, ২০২০ ইং

শিরোনাম
প্রকাশ : অক্টোবর ১০, ২০২০

সাংবাদিক বেলায়েত বাবলুর জন্মদিন আজ

অনলাইন ডেস্ক

পুরো নাম বেলায়ত হাসান বাবলু। পিতা খোকা মিয়া, মাতা রেবা বেগম।

চার ভাইয়ের মধ্যে ছোট। জন্ম নগরীর কাটপট্টি রোডে ১৯৭৬ সালের ১০ অক্টোবর। নগরীর ফকিরবাড়ী রোডের এ আর এস এম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রাথমিক ও ব্রজমোহন বিদ্যালয়ে মাধ্যমিক শিক্ষা গ্রহন করছি। ১৯৯৪ সালে এ প্রতিষ্ঠান থেকে প্রথম বিভাগে এস এস সি উর্ত্তীন হই। এরপর সরকারি বরিশাল কলেজ থেকে বিএ উর্ত্তীন হই।

সেখানে অধ্যায়নকালে ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলাম এবং ২০০০ সালে কলেজ ছাত্র সংসদ নির্বাচনে ছাত্রলীগ প্যানেল থেকে সহ- নাট্য ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক নির্বাচিত হই।

২০০১ সাল থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত আমি বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট বরিশালের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করি। পাশাপাশি আমি সদস্যের ভোটে আমি বরিশাল সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হই।

লেটার টাইপে প্রকাশিত দৈনিক শাহনামা পত্রিকায় ১৯৯৪ সালে আমি শিক্ষানবীশ সাংবাদিক হিসেবে কাজ শুরু করি। গুরু ছিলেন মরহুম ওয়াজেদ আলী খান।

এরপর সৈয়দ দুলাল দা সম্পাদিত আনন্দ লিখন পত্রিকায় কাজ করার সুযোগ হয়। সাংবাদিকতার জীবনে আমি আকতার ফারুক শাহীন ভাইয়ের সহায়তায় আজকের বার্তা ও জাতীয় দৈনিক যুগান্তরে কাজ করার সুযোগ পাই। এছাড়া আমি পরিবর্তন, মতবাদ, আজকের বরিশাল পত্রিকায় বার্তা সম্পাদক, আজকাল পত্রিকায় খন্ডকালীন সময়ের জন্য সহযেগী সম্পাদক, বিপ্লবী বাংলাদেশ ও দক্ষিনাঞ্চল পত্রিকায় যুগ্ম বার্তা সম্পাদক পদে কাজ করেছি। আমি বরিশালের নাট্য সয়গঠন প্রজন্ম নাট্যকেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছি বহুবার।

এছাড়া এ সংগঠনের ব্যানারে আমি কমপক্ষে ১৪ টি মঞ্চ নাটকে কাজ করার সুযোগ পেয়েছি।

প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে আওয়ামী লীগের ৫০ বছর পূূতির অনুষ্ঠানে গীতি আলেখ্য আলোর পথযাত্রীতে অংশ নেয়া ছিল আমার বড় প্রাপ্তি। আমি নিয়াজ মাহবুবের পরিচালনায় ধারাবাহিক নাটক কালো মকমল ও গুড়া গাড়া এবং নাটক গল্পের ইলিশ, রুস্তুম কুস্তিগির এবং সুব্রত সঞ্জিবের অপ্রকাশিত সমাজ নাটকে কাজ করেছি।

আমি বিবাহিত। স্ত্রী রোমানা বাবলু ও একমাত্র পুত্র নাফি হাসান শব্দকে নিয়ে বেশ ভালো আছি। বর্তমানে আমি বরিশাল সিটি কর্পোরশনে কর নির্ধারক হিসেবে কর্মরত আছি


আপনার মন্তব্য

error: Content is protected !!