ঢাকা, সোমবার, ৬ই এপ্রিল, ২০২০ ইং

শিরোনাম
প্রকাশ : মার্চ ২৪, ২০২০

প্রশাসনের নাকের ডগায় অবৈধ বালু উত্তোলন, খাদে পড়ে বৃদ্ধ’র মৃত্যু!

অনলাইন ডেস্ক

তালাশ প্রতিবেদক, ঝিনাইদহ ॥
ঝিনাইদহের হরিণাকু- উপজেলার নারায়নকান্দী গ্রামে দীর্ঘদিন ধরে চলছে অবৈধ ভাবে উত্তোলন। বালুর গর্তে পড়ে এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে । মৃত ব্যক্তি একই গ্রামের বেলেপাড়ার মৃত গফুর মন্ডলের পুত্র আনসার মন্ডল (৮৫) । একালাবাসি ও মৃতের স্বজনেরা জানান সকাল ১১টায় প্রকৃতির ডাকে সড়া দিয়ে আনসার মন্ডল বাড়ীর কাছাকাছি আক্তার মেম্বরের বালুর গর্তের ধারে যায়। দীর্ঘ সময় অতিবাহিত হওয়ার পরও সে ফিরে না আসায় লোকজন খোজ নিলে বালির গর্তের পানিতে মৃত অবস্থায় তাকে পায়। বালির গর্তের পাড় ধ্বসে পানিতে পড়ে তার মৃত্যু হয়েছে বলে স্বজন ও স্থানিয়রা ধারণা করছে ।

ইতিপূর্ব বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ সহ অভিযোগ পাওয়ার পর এই অবৈধভাবে বালি উত্তোলন বন্ধে উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ ব্যবস্থা নিলে অল্পকিছুদিন বালু উত্তোলনকারীরা থেমেছিল , কিন্তু অদৃশ্য কারণে প্রভাবশালী মহলের ইন্ধনে আবার শুরু হয় উৎসবমূখর পরিবেশে বালু উত্তোলন । যার ফলশ্রুতিতে মৃত্যুর ঘটনাও ঘটলো। এ ব্যপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন আমরা এখন করোনা নিয়ে ব্যস্ত। বালু উত্তোলন বন্ধে কয়েক বার ভাম্যমান আদালত পরিচালনা করেছি স্পটে কারও পাওয়া যায়না। ব্যবস্থা নেওয়ার পর উত্তোলন বন্ধছিল। আক্তার এবং লাল এ কাজে জড়িত বলেও তিনি জানান। কেউ মামলা করলে ব্যবস্থা নেওয়া সুবিধা হয়। আমরা অভিযান আব্যাহত রাখবো। এ ঘটনায় থানার অফিসার ইনচার্জ আসাদুজ্জামান এর কাছে জানতে চাইলে বলেন এ বিষয়ে নারায়নকান্দী ফাঁড়ীর আইসির মাধ্যমে ঘটনা জেনেছি , মৃতের আতœীয় স্বজনরা অভিযোগদিলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে ।

এলাকাবাসীদের ধারনা যেভাবে কয়েকবছর ধরে এই বালি উত্তোলন করা হচ্ছে তাতে নারায়নকান্দী গ্রামের শতশত একর জমি পানির নিচে বিলিয়ন হয়ে যাবে। এভাবে চলতে থাকলে গোটা গ্রাম অতলগহ্বরে নিমজ্জিত হতে পারে , এলাকাবাসী এই নিশ্চিত ধ্বংস ও অনাকাঙ্খিত মৃত্যুর ঘটনা এড়াতে ঝিনাইদহ জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ সহ হরিণাকু- উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দা নাফিস সুলতানার আসু হস্তক্ষেপ কামনা করেছে ।


আপনার মন্তব্য